| |

ধোবাউড়ায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মানবেতর জীবন, স্বাধীনতার ৪৫ বছরেও ভাতা জোটেনি।

আবুল হাশেম: ধোবাউড়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিনের পরিবার। স্বাধীনতার ৪৫ বছর পেরিয়ে গেলেও ভাতা জোটেনি তার ভাগ্যে। রহুল আমিন আর জীবিত নেই।প্রায় ১২ বছর পূর্বে মারা গেছেন। কিন্তু তার ছেলে আজহারুল ইসলাম বাবার আইডি কার্ডটি নিয়ে ঘুরছেন মানুসের দ্বারে দ্বারে।কখনও কখনও মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারসহ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা প্রতিশ্র“তি দিয়েছেন ভাতার ব্যাবস্থা করে দিবেন। কিন্তু তা প্রতিশ্র“তিতেই সীমাবদ্ধ। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান খান কার্ডটি দেখে বলেছেন বাংলাদেশে এমন কাার্ড অনেক থাকতে পারে। তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখব।উপজেলার সেনপাড়া গ্রামে অবস্থিত রুহুল আমিনের বাড়ি। ৫ ছেলে ও ২ বোনের সংসার নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তাদের পরিবারে এখন নুন আনতে পানতা পুরায় অবস্থা কিন্তু দেখার যেন কেউ নেই। এ ব্যাপারে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রফিক উদ্দিন ভূইয়া বলেন আমার কাছে মুক্তিযোদ্ধাদের যে তালিকা আছে তাতে রুহুল আমিনের নাম নেই।