| |

মদন হাসপাতালে কর্মচারী লাঞ্ছিত, কর্মবিরতি-মামলা দায়ের

মদন (নেত্রকোণা) প্রতিনিধিঃ নেত্রকোণার মদন উপজেলার ৫০ শয্যা হাসপাতালে কর্মচারী লাঞ্ছিত হওয়ায় সোমবার সকাল থেকে কর্মবিরতি পালন শুরু হয়েছে। এতে হাসপাতালে আগত রোগীরা চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।
জানা যায়, হাসপাতালের ইমারজেন্সি বিভাগে সোমবার সকালে একমি ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন ব্যবস্থাপত্রে তার কোম্পানীর ঔষধ না লিখায় কর্তব্যরত উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ইনচার্জ আব্বাস আলীকে গালিগালাজের এক পর্যায়ে কিল ঘুষি লাথি মেরে অফিসের এসল্ট রেজিষ্ট্রার বহি নিয়ে যায়। ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষনিক হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার, কর্মচারী সোমবার সকাল ১০টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন শুরু করে। এতে হাসপাতালে আগত রোগীরা চরম দুর্ভোগে পড়েন। লাঞ্চিত আব্বাস আলী জানান, মুখ দেখে ঔষধ না লিখায় হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে একমি কোম্পানীর আনোয়ার আমাকে কিল ঘুষি লাথি মেরে অফিসের রেজিষ্টার খাতা নিয়ে যায়। আমি এই ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।
এ ব্যাপারে ডাঃ আব্দুল কদ্দুছ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ধরনের ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার হওয়া উচিত। এ ব্যাপারে মদন থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওসি এস,এম মফিজুল ইসলাম জানান, এই ঘটনায় উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ইনচার্জ আব্বাস আলী বাদী হয়ে একমি ঔষধ কোম্পানীর আনোয়ার হোসেনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা হয়েছে। আসামী গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।