| |

পুষ্টি ও খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের আওতায় কৃষি বিভাগ ৩৫ হাজার কৃষক/কৃষাণীকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে

মুহাম্মদ হযরত আলী : কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের খাদ্য নিরাপত্তা ও পুষ্টি প্রকল্পের আওতায় ৩৫ হাজার ২শ কৃষক/কৃষাণীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বলে সূত্রে জানা গেছে। এ প্রকল্পের আওতায় শেরপুরের নকলা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের বাস্তবায়নে সমন্বিত কৃষি উন্নয়নের মাধ্যমে পুষ্টি ও খাদ্য নিরাপদ নিশ্চিত করণ প্রকল্পের অধিনে বসতবাড়িতে সবজি ও ফলবাগান স্থাপনের উপর গুরুত্বারোপ করে ২৯ মে সকালে নকলা উপজেলা কৃষি প্রশিক্ষণ কক্ষে দু’দিন ব্যাপি কৃষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু হয়েছে। এতে শেরপুর অতিরিক্ত উপপরিচালক (পিপি) আব্দুস সাত্তার, উপজেলা কৃষি অফিসার হুমায়ুন কবির, উপজেলা সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আব্দুল ওয়াদুদ। এতে ৩০ জন কৃষক/কৃষাণী অংশ গ্রহণ করেন। অপরদিকে নালিতাবাড়ী উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ শরিফ ইকবাল জানান, ১৩টি ব্লকে ৪০ জন করে কৃষক/কৃষানীর গ্রুপ তৈরি করে তাদেরকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আবাদী জমির ফসল বৃদ্ধি করা ও পুষ্টি চাহিদা মেটানোর লক্ষে ৫শ ২০ জন কৃষক/কৃষাণীর মাঝে পাওয়ার টিলার, হ্যান্ডস্পেয়ার, বালাইনাশক প্রয়োগ যন্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ আধিদপ্তর খামার বাড়ী, ঢাকা পুষ্টি ও নিরাপত্তা প্রকল্পের পরিচালক মোঃ মাইদুর রহমান এ প্রতিবেদককে জানান, দেশের ২৯টি জেলার ৮৮টি উপজেলায় ৮৮০টি ব্লকে গ্রুপ করে ৩৫ হাজার ২শ কৃষক/কৃষানীকে এ প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষণ প্রদান, যান্ত্রিক সুবিধা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। প্রকল্পটি শুরু হয়েছে ২০১৪ সালে শেষ হবে ২০১৯ সালের জুন মাসে। এতে করে তালিকা ভূক্ত কৃষক/কৃষাণীরা তাদের সবজি বাগান ফলের বাগান, ফসলের মাঠ সম্পর্কে সার্বিক জ্ঞান লাভ করবে এবং আদর্শ কৃষক/কৃষাণী হিসেবে গড়ে ওঠবে।