| |

বাকৃবিতে নানা আয়োজনে ‘বিশ্ব দুগ্ধ দিবস’ পালিত

মো. আব্দুর রহমান: ময়মনসিংহে অবস্থিত বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) প্রতিবছরের ন্যয় এবারো জমকালো আয়োজনে পালিত হল ‘বিশ্ব দুগ্ধ দিবস’ ২০১৬। পশুপালন অনুষদীয় ডেইরি বিজ্ঞান বিভাগের তত্ত্বাবধানে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল: “চৎড়ফঁপব গরষশ, উৎরহশ গরষশ, ইঁরষফ ঐবধষঃযু ঘধঃরড়হ” । বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাকৃবিতে দিবসটি উৎযাপনের লক্ষ্যে নানা কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। এর মধ্যে ছিল র‌্যালী, স্কুলের শিশুদের দুধ পান করানো ও সেমিনার।
৪ জুন, শনিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. আলী আকবর এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস ও প্রানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, এম.পি. বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানটির শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করেন। তারপর অনুষদের সামনে থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা প্রদক্ষিণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন মিলনায়তনে শেষ হয়।
মিলনায়তনে শিশুদের দুধ পান করানো হয়। এ সময় প্রত্যেক শিশুকে ২৫০ মিলি ওজনের একটি করে দুধের প্যাকেট দেওয়া হয়।
বেলা ১১ টার সময় বিশ্ব দুগ্ধ দিবস’ ২০১৬ উপলক্ষ্যে সেমিনারের আয়োজন করা হয়। সেমিনারে সভাপত্তিত্ব করেন ডেইরি বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ড. আশিকুল এবং সেমিনারের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রফেসর ড. নূরুল ইসলাম।
প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মৎস্য ও প্রানিসম্পদ মন্তণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, এম.পি. এবং প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. আলী আকবর।
সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য ও কৃষি সংস্থা ( এফএও) বাংলাদেশ প্রতিনিধি মি. মাইক রবসন, পশুপালন অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. সচ্চিনান্দ দাস চৌধুরি, মিল্ক ভিটার অ্যাডিসনাল সেক্রেটারি মো. জাকির হোসেন, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের পরিচালক অজয় কুমার রায়, বাংলাদেশ অ্যানিমেল হাজবেন্ড্রি অ্যাশোসিয়েশনের সভাপতি প্রফেসর ড. সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন, ঢাকা আইসক্রিম কোম্পানির চিপ অপারেশনাল অফিসার শাহ্ মাসুদ ইমরান, প্রাণ ডেইরি লিমিটেডের এজিএম কৃষিবিদ ড. হারুনুর রশিদ ও ব্র্যাক কৃত্রিম প্রজনন এন্টার প্রাইজের ডেপুটি জেনারেল মেনেজার একিউ এম শফিকুর রউফ।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন পশুপালন অনুষদের শিক্ষক মন্ডলী ও শিক্ষার্থীরা।
সেমিনারে বাকৃবির দুগ্ধ গবেষকরা খাদ্য হিসেবে দুধের উপকারিতা ও পুষ্টি গুনাগুন তুলে ধরেন। সেখানে তারা বলেন, একটি সুস্থ মানুষের দিনে ২৫০ গ্রাম দুধ পান করা প্রয়োজন। তারা বলেন, যে জাতি যত বেশি দুধ পান করে সে জাতি তত জ্ঞানী ও সুস্থ সবল। সেখানে তারা বেশি বেশি দুধ পানের আহ্বান জানায়।
উল্লেখ্য, ২০০১ সাল থেকে প্রতিবছর ১ লা জুন, সারা বিশ্বে একসাথে এই দিবসটি পালিত হয়ে আসছে।