| |

১নং ফাঁড়ি পুলিশের অভিযানে মহিলা ছিনতাইকারীচক্রের ১৪ সদস্য গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ কোতোয়ালী পুলিশের ১নং ফাঁড়ি পুলিশের অভিযানে মহিলা ছিনতাইকারী চক্রের ১৪ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো হবিগঞ্জ ও বি বাড়িয়া জেলার সারমিন ওরফে সাহানা, আসমা, রোকসানা, রফুলা খাতুন, আফিয়া খাতুন, রহিমা খাতুন, আমেনা খাতুন, আকলিমা খাতুন, চাম্পা, আউলিয়া বেগম, আমিরন, শেফালী। এছাড়া এ মহিলা ছিনতাইকারীদলের সাথে হবিগঞ্জ জেলার বাসিন্দা তাদের স্বামী সোহেল মিয়া ও খলিল মিয়া। ১নং ফাঁড়ি পুলিশের টিএসআই আশরাফের নেতৃত্বে শনিবার সন্ধ্যা থেকে রাত ব্যাপী শহরের গাঙ্গিনার পাড়, স্টেশন রোড ও এবিগুহ রোড এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত একটি স্বর্ণের চেইন উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আকুয়া লিচু বাগান এলাকার ফাহিমা খাতুন বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করেছে। ফাঁড়ি পুলিশের টিএসআই আশরাফ জানান, গত কিছু দিন ধরে একাধিক মহিলা ছিনতাইকারীচক্র শহরের বিভিন্ন রোডে যাত্রীবেশে ইজিবাইকে মহিলাদের পাশে কৌশলে বসে মহিলাদের কাছ থেকে অলংকার, ব্যানিটি ব্যাগ, টাকা পয়সা লুটে নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। এদিকে আকুয়া লিচু বাগান এলাকার ফাহিমা খাতুন অভিযোগ করেন মহিলা ছিনতাইকারীচক্র ইজিবাইকে তাঁর পাশে বসে গলা থেকে কৌশলে চেইন ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ধরণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ অভিযানে নামে। এ সময় উল্লেখিত ছিনতাইকারীদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় কোতোয়ালী মডেল থানায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত মহিলা ছিনতাইকারীরা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে জানান, বি বাড়িয়া ও হবিগঞ্জ থেকে বিশাল একটি সিন্ডিকেট ঈদ পুর্ব মুহুর্তে ময়মনসিংহে আসেন। চক্রটি শম্ভুগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে অবস্থান করে প্রতিদিন শহরের পাটগুদাম ব্রীজ, রেলওয়ে স্টেশন, গাঙ্গিনার পাড়সহ বিভিন্ন এলাকায় ছিনতাই করে আসছে। এদিকে আকুয়া লিচু বাগান এলাকার ফাহিমা খাতুন অভিযোগ করেছেন। ফাঁড়ি ও কোতোয়ালী পুলিশ ঈদ পুর্ব মুহুর্তে শহরে যাতায়াতকারী মানুষজনকে নিরাপদে কেনাকাটা ও পথ চলার উদ্দোগে নিতে অভিযান অব্যাহত রেখেছেন। তবে এ চক্রটির বেশীরভাগ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদেরকেও গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে।