| |

নকলায় জমে উঠেছে ঈদের বাজার

মুহাম্মদ হযরত আলী: নকলা উপজেলার হাট বাজার গুলোতে ঈদের বাজার এখন জমজমাট। ক্রেতাদের প্রচুর সমাগমে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে বেচা কেনা। যতই রোজা যাচ্ছে ততই ঈদে সন্নিকটে আসছে। ঈদের বাজারে মানুষের সমাগম বাড়ছে। এই ঈদ উৎসবকে ঘিরে শেরপুরের নকলা শহরের প্রতিটি অভিজাত বিপণীকেন্দ্রে ত্রেতাদের আকৃষ্ট করতে সাজানো হয়েছে আকর্ষনীয় সাজে। ত্রেতাদের ভীড়ে জমে উঠেছে নকলার ঈদ বাজার। শহরের নাহিদ, আলামিন, আধুনিক, ওসমান, মনেরেখ, আসিফ, মিশু, লাছা, ফ্যাশনসহ শহরের বিভিন্ন শপিংমল গুলোতে উপচেপড়া ভীড় চোখে পড়ার মত। ওসমান ফ্যাশনের মালিক ওসমান গণি জানান, লেহেঙ্গা, লংকামিজ, দেশীয় জামদানী, মনিপুরি, কুর্তি পাঞ্জাবীসহ ভারতীয় কাপড় বেশি বিক্রি হচ্ছে। অভিজাত মার্কেট গুলোতে দোকানীরা সাজিয়ে রেখেছে বাহারী সবধরনের পোষাক ও পণ্য। বিভিন্ন শ্রেণির পোষাক মানুষের চাহিদা বিবেচনা মাথায় রেখে দোকানে সাজিয়ে রাখা হয়েছে নতুন নতুন ডিজাইনর দেশি বিদেশী কাপড়। উঠতি বয়সের তরুণ তরুণীদের ভীড় লক্ষ্যনীয় বিশেষ করে তরুণীদের দৃষ্টি কেড়ে নিয়েছে লেহেঙ্গা ও লং কামিজ, সুতি পাঞ্জাবী। এ পোশাকগুলো বাড়ি থেকে যেন মুখস্থ করে আসে তরুনীরা। গভীররাত পর্যন্ত চলছে জমজমাট বিকিকিনি। এবার সব বয়সের মহিলাদের ভীড় লক্ষ্যনীয়। ধুম ফেলানোর ফুসরত নেই যেন ব্যবসায়ীদের। ত্রেতাদের আকর্ষন করতে কিছু বিপনীতে আয়োজন করা হয়েছে লাকিকুপন। সুই-সুতা কারীগররাও দম ফেলার সময় পাচ্ছেনা। প্রসাধনী, জুতা ও থান কাপড়ের দোকান গুলোতেও প্রচন্ড ভীড়। ক্রেতারা সাধারণকে আকর্ষণ করতে ফ্যাশন হাউজ গুলো সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে । ফ্যাশন হাউজ ও তৈরী পোষাকের দোকানের সাথে প্রতিযোগিতায পিছিয়ে নেই কসমেটিকস্কের বিতান গুলো। তরুণ নারীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে ঈদ বাজার। তৈরী পোষাকের দোকানীরা জানায় এসপ্তাহে কেনাকাটা অনেকটা বেড়েছে ঈদের বাজারের সুযোগে অসাধু ব্যবসায়ীরা নকল ও ভেজাল সামগ্রী বেদার্সে বিক্রি করছে। নামী দামী বেশ কিছু দোকানে এক দরের ছলনায় গলাকাটা লাভ হাতিয়ে নিচ্ছে ক্রেতাদের কাছ থেকে। নি¤œ আয়ের মানুষগুলো ফুটফাতের দোকান গুলোতে ভীড় করছে। সদরের বাইরেও ঈদ বাজর জমে উঠতে শুরু করেছে। সর্বোপরী শেরপুরের নকলা উপজেলায় ঈদের বাজার জমে উঠেছে।