| |

নাগরপুরে দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ১৫ আশংকাজনক ৭

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ঃ পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাবেক দুই ইউপি মেম্বার গ্রুপের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। দফায় দফায় হামলা ও পাল্টা হামলায় বিবাদমান দুই গ্রুপের নারী সহ কমপক্ষে ১৫ জন গুরুতর আহত হয়। এদের মধ্যে ৭ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের কে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। মঙ্গলবার বিকেলে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার মেঘনা বাজারে এ ঘটনা ঘটে।
নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জহিরুল ইসলাম জানান, দুই পক্ষেই বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছে। এ ঘটনায় পৃথক দুইটি মামলা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলার মেঘনা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মো. আফজাল হোসেনের সাথে ওই গ্রামের আরেক সাবেক সদস্য আরজু মিয়ার দ্বন্দ চলে আসছিল। মঙ্গলবার বিকেলে মেঘনা বাজারে আরজুর দোকানের সামনে আফজালের ছেলে রুবেল মিয়া এলে আরজুর লোকজন তাকে মারপিট করে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে আফজাল মেম্বারের বিক্ষুব্ধ লোকজন পাল্টা হামলা চালায়। এসময় দুই পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। হামলা পাল্টা হামলায় উভয় পক্ষের অন্তত ১৫ জন গুরুতর আহত হয়। আহতরা হচ্ছে, মো. শহিদুল ইসলাম, আমিনুর রহমান, সুজন ভুইয়া, মো. এখলাস, রেজাউল করিম, হাবিবুর রহমান, আফজাল হোসেন, সিদ্দিক হোসেন, রুবেল মিয়া, রুমন, ভেন্দু বেপাড়ী, সুমন, ও অজিফা বেগম। এদের মধ্যে সিদ্দিক মিয়া, রুবেল, রুমন, সুমন, শহিদুল, আমিনুর, ও সুজন ভুইয়ার অবস্থা আশংকাজনক বলে হাসপাতাল সূত্র জানান। তাদেরকে মূমুর্ষ অবস্থায় ওই রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।