| |

কিশোরগঞ্জে বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স ধর্মঘট বিপাকে রোগী ও স্বজনরা

নজরুল ইসলাম খায়রুল : কিশোরগঞ্জে বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স ধর্মঘটের কারণে বিপাকে পড়েছে রোগী ও তাদের স্বজনরা। সম্প্রতি জেলার সিভিল সার্জনের নির্দেশে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল চত্বরে বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স এর অবস্থান নিষিদ্ধ করায় এ ধর্মঘট শুরু হয়। এর পরপরই সরকারী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে রোববার থেকে কিশোরগঞ্জ জেলা বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স মালিক সমিতির এ ধর্মঘট আহবান করে। ধর্মঘটের কারণে বন্ধ রয়েছে হাসপাতাল থেকে রোগী আনা নেয়ার নিয়োজিত ২০টি বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স।
এদিকে বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স চলাচল বন্ধ থাকায় চিকিৎসকের নির্দেশে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা ও ময়মনসিংহের বিভিন্ন হাসপাতালে রেফার্ডকৃত রোগী প্রেরণে চরম সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। জেলা সদরে অবস্থিত এ হাসপাতালের জন্য বরাদ্দকৃত ২টি মাত্র সরকারী এ্যাম্বুলেন্স দিয়ে রোগীদের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান সম্ভব হচ্ছেনা। এর ফলে বহু চেষ্টা করেও সময়মত এ্যাম্বুলেন্স না পাওয়ায় রোগীদের অবস্থার অবনতি ঘটছে।
এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ জানান, হাসপাতালের ভিতরে ও বাহিরে কোথাও বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স রাখতে না দেয়ার কারণে একদিকে রোগীরা যেমন সেবা বঞ্চিত হচ্ছেন, অন্যদিকে মালিক চালকরাও বেকার হয়ে পড়ায় পরিবার নিয়ে কষ্টে দিনাতিপাত করছি।
তবে ঢাকায় অবস্থানরত জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল গণি মুঠোফোনে জানান, সরকারী নির্দেশ মোতাবেক হাসপাতাল চত্বরে বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্সের অবস্থান নিষিদ্ধ করা হয়েছে।