| |

গৌরীপুরে শিক্ষককে লাঞ্চিত করলো ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি!

গৌরীপুর প্রতিনিধি ঃ ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার সিধলা ইউনিয়নের হাসনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জহিরুল ইসলাম আকন্দকে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ হায়দার রশিদ মিলন চড়-থাপ্পড় দিয়ে লাঞ্চিত করেছে। এ সময় প্রধান শিক্ষককে নিজকক্ষে আটকে এক ঘন্টা তালা মেরে রাখে এ নেতা!
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জহিরুল ইসলাম আকন্দ জানান, সকালে সিধলা ইউনিয়নের হাসনপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদ মাস্টারের পুত্র মোঃ হায়দার রশিদ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের কক্ষে এসে ম্যানেজিং কমিটি করার নির্দেশ দেন। এ বিষয়ে উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করতে বলায় একপর্যায়ে বাকবিত-া শুরু হয়। প্রথমে বাঁশ দিয়ে, পরে ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে দেয়ার চেষ্টা করে। সহকারী শিক্ষকরা বাঁধা দেয়ায় চড়, থাপ্পড় ও কিল-ঘুষি মারতে থাকে ও শার্টের কলারে ধরে টানাহেঁচড়া করায় বোতমও ছিঁড়ে যায়। পরে সহকারী শিক্ষকদের বের করে তাঁকে তালাবদ্ধ করে রাখে। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে সেলিম রেজা বাবলু তাঁকে উদ্ধার করেন। শিক্ষকের ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী, ছাত্রছাত্রী, অভিভাবক ও উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা জমায়েত হন। ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি গৌরীপুর শাখার আহবায়ক মোঃ আমজাদ হোসেন বলেন, শিক্ষক নেতৃবৃন্দের বৈঠকের মাধ্যমে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জয়নাল আবেদিন বলেন, অনাকাঙ্খিত এ ঘটনার জন্য মোঃ হায়দার রশিদ মিলন দুঃখ প্রকাশ করেছে। বিষয়টি রোববার (৩১ জুলাই) সালিশের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আবু মোঃ ফজলুল করিম বলেন, ভুল বুঝাবুঝি নিয়ে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। এখন পর্যন্ত (বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই বিকাল ৫টা পর্যন্ত) কেউ অভিযোগ দেয়নি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মর্জিনা আক্তার জানান, সেখানে পুলিশ প্রেরণ ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।