| |

মনোয়ারা খাতুন পোল্ট্রি খামার গড়ে স্বাবলম্বী

ইউসুফ আলী মন্ডল: শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার জালালপুর গ্রামের মনোয়ারা খাতুন স্বামী ছেলে, মেয়ে ৬জন নিয়ে সংসার তার। ছেলে মেয়েদের ভরণ পোষণ চালাতে গিয়ে যখন তার স্বামী হাসেন আলী দিশাকুল পাচ্ছেন না ঠিক এমনই সময় নকলায় কৃষি ব্যাংকের ম্যানেজার ফিরুজ মিয়া মনোয়ারাকে ১০ হাজার টাকা ঋণ হিসেবে দেয়। ১০ হাজার টাকা পরিশোধ করে আবার মনোয়ারা ১ লাখ টাকা ঋণ নেয়। কয়েকটি মুরগীর বাচ্চা কিনে পালন করে আবার বিক্রি করে পরের বার ৪শ বাচ্চা বড় করে প্রায় লাভ হয় ৫০ হাজার টাকা। এভাবেই গত ৭ বছরে পুজি বৃদ্ধি পেতে থাকে। এই পোল্ট্রির আয় থেকে দুই মেয়ে বিয়ে দেয়। এক মেয়ে ৯ম শ্রেণিতে পড়াশুনা করছে। এক ছেলে ঢাকা গাজীপুর পলিটেকনিকেল কলেজে পড়াশুনা করে তার জন্য মাসে ১০ হাজার টাকা খরচ দেন মনোয়ারা। এক সময় মনোয়ারার দিন চলত না এখন দুই মেয়ে বিয়ে দিয়ে এক ছেলেকে লেখা পড়ার খরচ যোগাচ্ছেন। তার ব্যাংকের ঋণ পরিশোধ করেও ১ লাখ টাকা আয় রয়েছে বলে জানান, তার স্বামী হাসেম আলী। মনোয়ারার সংসারে স্বাচ্ছন্দ্য ফিরে এসেছে। এখন  তার স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্নই বুকে ধারণ করে চলেছেন।