| |

মুক্তাগাছায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে দুপুরের খাবার বিতরণ

শফিউল্লাহ সরকার শফিক : মুক্তাগাছা উপজেলার সবকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা দুুপুরে না খেয়েই ক্লাস করে থাকে। এতে টিফিনের পর শিক্ষার্থীদের শরীরে এনার্জি থাকে না। ক্রমেই তারা দুর্বল হয়ে পড়ে। ক্লাসেও  তাদের মন বসে না। যে কারনে টিফিনের পর অনেক সময় স্কুল ছুটি দিতে বাধ্য হন শিক্ষকরা। বিষয়টি নজরে পড়ে মুক্তাগাছা উপজেলার বনবাংলা গ্রামের বাসিন্দাদের। তারা উদ্যোগ নেয় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের কিভাবে দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করা যায়। এ বিষটির ওপর তারা প্রচার চালায় গ্রামে।    এক সময় তারা গ্রামের লোকজন নিয়ে বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেন এলাকার ধনাঢ্যদের কাছ থেকে চাঁদা তোলা হবে। পরে জমানো ওই টাকা দিয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবার ব্যবস্থা করা হবে। তাদের উদ্যোগের সাথে সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন উপজেলা প্রশাসন। তাদের নির্দেশনা মতে গ্রামবাসী চাঁদা তোলে ওই এলাকার বনবাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩ শ ৮৮ জন কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে দুপুরের খাবার বিতরণের সিদ্ধান্ত নেন। গতকাল মঙ্গলবার থেকে তারা শিক্ষার্থীদের মাঝে একটি টিফিন বাটির মাধ্যমে খিচুরি, শুকনা খাবার বিতরণ শুরু করেন। গতকাল ওই বিদ্যালয়ের মাঠে এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে মিড ডে মিল নামে এ কার্যক্রমের উদ্ধোধন করেন ময়মনসিংহে জেলা প্রশাসক মোস্তাকিম বিল্লাহ ফারুকী। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেনের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শফিউল হক, মুক্তাগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম জাকারিয়া হারুন, ইউএনও জুলকার নায়ন, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হাবিবা সুলতানা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আবুল কাশেম, বিশিষ্ট কলাম লেখক স্বপন ধর, কাশিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইফতেখার রসুল চেীধুরী সুমন, আওয়ামীলীগের নেতা মুশফিকুর রহমান মুশফিক, আঃ জলিল ফারুক,সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম।