| |

লেখা পড়ার পাশাপাশি ক্রীড়া-সাংস্কৃতিক ও বাহ্যিক জ্ঞান আহরণ করলে পরিপূর্ণ মানুষ হবে-নাগরিক হতে পারবে এক নম্বর-পৌরসভা আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে-এড. জহিরুল হক

স্টাফ রিপোর্টার ঃ “শিক্ষিত প্রজন্ম গড়বে সুন্দর আগামী” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ময়মনসিংহ পৌরসভার উদ্যোগে বরাবরের মতো এ বছরেও ময়মনসিংহ পৌর এলাকায় অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহের ২০১৬ সনের এস.এস.সি ও এইচ.এস.সি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান গতকাল শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) স্থানীয় টাউন হল মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। পৌর মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটুর সভাপতিত্বে কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ প্রশাসক ও জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এড. জহিরুল হক খোকা। তিনি বলেন, পরিপূর্ণ ও প্রকৃত মানুষ হতে হলে শুধু লেখাপড়া করলেই চলবেনা খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক চর্চা ও বাহ্যিক জ্ঞান আহরণ করতে হবে। তবেই নাগরিক হতে পারবে এক নম্বর। আগামীদিনের চেলেঞ্জ মোকাবেলায় কৃতিত্ব অর্জন করলেই হবে না তা ভবিষ্যৎ গড়ার জন্য ধরে রাখতে হবে এবং যোগ্যতার সাথে তার স্বাক্ষর রাখতে হবে। তিনি আরও বলেন আজকে টাউনহল মাঠ একঝাঁক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে। দেশ আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সাহসি পদক্ষেপের মাধ্যমে উন্নয়নের শিখড়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে স্বাধীনতা পেয়েছি আর শেখ হাসিনার হাত ধরে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশে প্রবেশ করেছি। তিনি শিক্ষার্থীদের আরও বলেন মাদকের ভয়াল থাবা থেকে দূরে থাকতে হবে এবং ভাল বন্ধুর সংগ নিতে হবে। এ ব্যাপারে শিক্ষক ও অভিবাবকদের অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে। তোমরা ভালটাকে উত্তম করতে চেষ্টা কর আর উত্তমটাকে আরও উত্তম কর। কেননা তোমাদের হাতেই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সরকারী আনন্দ মোহন কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ জাকির হোসেন, মুমিনুন্নিসা সরকারী মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ মোঃ এন. এম. শাহজাহান সরকার, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ অধ্যক্ষ এ. কে. এম আবদুর রফিক প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা কমিটির আহবায়ক প্যানেল মেয়র-২ মোঃ নজরুল ইসলাম। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে পৌরসভার সকল কাউন্সিলর বৃন্দ ও সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা কর্মচারীগন উপস্থিত ছিলেন। প্রায় আড়াই হাজার কৃতি শিক্ষার্থীদের সনদপত্র ও মেডেল দিয়ে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন সজল কোরায়শী। সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে কৃতি শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে লটারীর ড্র অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুইটি লেপটপ, ছয়টি এনড্রোয়েড মোবাইল সেট ও অন্যান্য বিশটি অন্যান্য পুরুস্কারসহ মোট ২৮টি পুরুস্কার প্রদান করা হয়। সব শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতি অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।