| |

কিশোরগঞ্জে অর্থাভাবে অসুস্থ মেধাবী ছাত্র মাহীমের আলো নিভে যাবে কি ?

নজরুল ইসলাম খায়রুল : কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের ঐতিহ্যবাহী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের দিবা শাখার (খ), রোল-২৬ এর মেধাবী ছাত্র মোঃ বখতিয়ার জাহান মাহীম এখন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাঁর শরীরের বাম বগলের নীচে টিউমার থাকায় প্রচন্ড ব্যথায় শয্যাসায়ী। ঠিকমতো কথাও বলতে পারেন না। বলতে গেলে ব্যাথা নাশক ওষুধ খেয়ে কোন রকমে বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। অসচ্ছল ও অসুস্থ পিতা তার পুত্রের চিকিৎসার জন্য জেলা প্রশাসন ও সমাজ সেবা কার্যালয়ে আবেদন-নিবেদন করেও অর্থের কোন ব্যবস্থা করতে না পারায় মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন। মাহীমের পিতা মোঃ শাহজাহান রেনু জানান, ২০১৩ সালের জুলাই মাসে ছেলের এই টিউমার ধরা পড়ে। পরে মাহীমকে ঢাকা হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের সহযোগি অধ্যাপক ডাঃ আবুল বাশার চিকিৎসা করেন। ওই সময় ডাঃ আবুল বাশার টিউমার অপারেশন করার ঝুঁকি নিয়ে জানান, টিউমার অপারেশন করলে নার্ভ কাটা যেতে পারে। এছাড়াও পূণরায় টিউমার জন্ম লাভের সম্ভবনা রয়েছে। ওই সময় অর্থের অভাবে মাত্র ৬০-৭০ হাজার টাকা খরচ করে ছেলের সম্পূর্ণ চিকিৎসা করতে পারেননি। বর্তমানে ডাক্তারের পরামর্শে মাহীমের চিকিৎসা করাতে ভারত অথবা সিংগাপুরে নিয়ে যেতে হবে। এতে করে প্রায় ৩৫ থেকে ৪০ লাখ টাকা খরচ হতে পারে। অসচ্ছল ও অসুস্থ পিতার পক্ষে এই টাকা খরচ করে চিকিৎসা করা সম্ভব নয়। আপনার আর্থিক সাহয্যে সুন্দর ফুটফোটে মাহীমের জীবন বেঁচে যেতে পারে। আর তাই ছেলের চিকিৎসার জন্য সমাজের সহৃদয়বান ব্যক্তিদের আর্থিক সহায়তা চেয়েছেন। কেউ যদি সহায়তা করতে চান তাহলে ছেলের স্টুডেন্ট একাউন্ট নং-১২, রূপালী ব্যাংক লিঃ পাটুয়া ভাঁঙ্গা দরগা বাজার শাখা, পাকুন্দিয়া, কিশোরগঞ্জ এবং ছেলের পিতা- মোঃ শাহজাহান রেনু একাউন্ট নং- ৩৭১ রূপালী ব্যাংক লিঃ পাটুয়াভাঁঙ্গা দরগা বাজার শাখা, পাকুন্দিয়া, কিশোরগঞ্জ। মোবাইল নাম্বার-০১৭২৬-৭৬৩৪৩৭। এই ঠিকানায় সাহায্য পাঠাতে পরিবারের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।