| |

কেন্দুয়ায় এতিম ও বিধবার ৫০ লক্ষাধিক টাকার সম্পত্তি ভোগ দখলের অভিযোগ, আদালতে মামলা

মোঃ মহিউদ্দিন সরকার ঃ নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার নওপাড়া গ্রামের মৃত ফটিক চাঁনের বিধবা স্ত্রী নূরেছা আক্তার (৫০) ও এতিম ছেলে শ্রাবণ (১০) এর প্রায় ৩০ কাঠা সম্পত্তি জাল দলিলের মাধ্যমে ভোগ দখল করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জমির বিবরণ-দাগ নং ৫০৩৩, শ্রেণি কান্দা, ভূমির পরিমাণ ০৯ শতাংশ, দাগ নং ৫০৩৪, শ্রেণি কান্দা, ভূমির পরিমাণ ০৮ শতাংশ, দাগ নং ৫০৪৯, শ্রেণি কান্দা, ৮১ শতাংশ, দাগ নং ৫০৫০, শ্রেণি পুকুর, ৩৭ শতাংশ, দাগ নং ৫০৫২, শ্রেণি কান্দা, ৬২ শতাংশ, দাগ নং ৫০৫৩, শ্রেণি পুকুর, ২২ শতাংশ, দাগ নং ৫০৮৫, শ্রেণি কান্দা, ৩১ শতাংশ, দাগ নং ৫০৮৬, শ্রেণি কান্দা, ০৭ শতাংশ, দাগ নং ৫০৮৭, শ্রেণি কান্দা, ১০ শতাংশ, দাগ নং ৫০৮৮, শ্রেণি কান্দা, ০২ শতাংশ, দাগ নং ৫০৮৯, শ্রেণি কান্দা, ০৭ শতাংশ, দাগ নং ৫০৯০, শ্রেণি কান্দা, ১৬ শতাংশ, দাগ নং ৫০৯৬, শ্রেনি কান্দা, ০৩ শতাংশ। মোট ভূমির পরিমাণ ২.৯৫ শতাংশ। জানা যায়, বিধবা নূরেছা আক্তারের সৎ মেয়ে দিলোয়ারা বেগমের স্বামী পার্শ্ববর্তী রাজীবপুর গ্রামের আমিরুল ইসলাম কতিপয় ভূমি লোভী, অর্থ লোভী, ভয়ংকর প্রকৃতির লোক। ৫ বছর আগে নূরেছার স্বামী মারা যায়। স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে এতিম ছেলে শ্রাবণ (১০) কে নিয়ে স্বামীর বসত ভিটায় বসবাস করে আসছিলেন। আমিরুল ইসলাম নওপাড়া গ্রামের ঘর জামাই হিসেবে থাকে। নানা কৌশলে জাল দলিলের মাধ্যমে জোরপূর্বক ভাবে ৩০ কাঠা সম্পত্তি ভোগ দখল করিয়া আসিতেছেন। এই ব্যাপারে নূরেছা আক্তার জমির অধিকার ফেরত পাওয়ার জন্য চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট আদালত, নেত্রকোণায় ০২/০১/২০১৭ ইং তারিখে ৪৬৭/৪৬৮ ধারায় মামলা দায়ের করেন। কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সিরাজুল ইসলামকে বিজ্ঞ আদালত ১৭৩ ধারা মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন এখনও আমি লিখিত নির্দেশনা পাইনি। ঘটনাটি আমি শুনেছি। নির্দেশনা পেলে আমি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব। অপরদিকে আদালত সূত্রে জানা যায়, কেন্দুয়া থানার কন্সটেবল (নং-১০২০) মাজহারুল ইসলাম ১১/০১/২০১৭ ইং তারিখে নির্দেশনাটি হাতে হাতে কেন্দুয়া থানায় নিয়ে যাই। এ ব্যাপারে মাজহারুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। এলাকার সচেতন মহলের দাবী বিষয়টি দ্রুত আইনী ব্যবস্থার মাধ্যমে সমাধান করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।