| |

ঈশ্বরগঞ্জে বাড়ছে অবৈধ ইটভাটার সংখ্যা ইট তৈরির মাটি সংগ্রহ করতে নষ্ট করা হচ্ছে জমি ও রাস্তা

ঈশ্বরগঞ্জ  প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে বাড়ছে ক্রমেই অবৈধ ইটভাটার সংখ্যা। এসব ইটভাটার অধিংকাশেরই পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমোদন না থাকলেও দেদারছে পুড়ানো হচ্ছে কাঠ। এছাড়া ইট তৈরির মাটি সংগ্রহ করতে ফসলি জমি খনন এবং মাটি বহনকারী যান চলাচলের মাধ্যমেও নষ্ট করা হচ্ছে পাকা রাস্তা । এতে উন্নয়ন কাজের ক্ষতির পাশাপাশি দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। কৃষি জমি সুরক্ষা আইন থাকলে তা বাস্তবায়ন না হওয়ায় ফসলি জমিতে ইটভাটা নির্মাণ করায় কৃষি উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। এ উপজেলায় ১৮টি ইটেরভাটা মধ্যে বৈধ অনুমোদন রয়েছে মাত্র ৮টির। অবৈধভাবে অনুমোদনবিহীন এসব ইটেরভাটায় অবাদে পুড়ানো হচ্ছে কাঠ। এতে পরিবেশ দূষণের পাশাপাশি সরকার হারাচ্ছে লাখ লাখ টাকার রাজস্ব।
স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকায় ১৮টি ইটভাটার মধ্যে ৮টির অনুমোদন রয়েছে। এসব ইটভাটায় প্রতিদিন ফসলি জমির ঊর্বর মাটি কেটে নিয়ে বানানো হচ্ছে ইট। এতে কৃষি জমি হারাচ্ছে ঊর্বরতা শক্তি। অন্যদিকে ইটভাটার মালিকরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে ট্রাকভর্তি করে মাটি এনে গ্রামীণ পাকা রাস্তা কেটে ধ্বংস করছে। এ ছাড়াও গ্রামীন রাস্তাগুলো হালকা যানবাহনের উপযোগী করে তৈরি করা। এসব রাস্তা দিয়ে ধারণ ক্ষমতার দ্বিগুণ ওজনের মাটি বোঝাই ট্রাক চলাচল করায় রাস্তার ইট পাথর উঠে গিয়ে সাধারণ যান চলাচলও অনুপযোগী হয়ে পড়ছে।
এ ব্যপারে এলজি ইডির প্রকৌশলী আব্দুস সবুরকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, এ রাস্তাগুলোতে দশ টন ওজনের  গাড়ি চলাচল করতে পাড়বে। কিন্তু এ রাস্তাগুলো দিয়ে ২০ থেকে ৩০ টন ওজনের গাড়ি চলাচল করছে। যে কারনে রাস্তা নষ্ট হচ্ছে। তিনি আরও জানান রাস্তা করার দায়িত্ব  এল জি ইডির দেখভালের দায়িত্ব প্রশাসনের।
জানাযায়, ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে আঠারবাড়ি-চরহোসেনপুর  থেকে দেওয়ানগঞ্জ, ঈশ্বরগঞ্জ থেকে আনন্দগঞ্জ, খালবলা থেকে আনন্দগঞ্জ, হারুয়া থেকে দেয়ানগঞ্জ বাজার, চরশিহারি থেকে কাঁঠাল বাজার, ভারতীবাজার থেকে আনন্দগঞ্জ  তারুন্দিয়া বাজার থেকে ঈশ্বরগঞ্জ, ইসলামপুর  থেকে ঈশ্বরগঞ্জ এলজিইডির রাস্তাগুলো অধিক বোঝাই করা ইট ও মাটি পরিবহন করায় পরো রাস্তা ভেঙে পথচারিসহ যান চলাচলের অনোপযোগী হয়ে পড়ছে। সরকার কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তা নির্মাণ করলেও দেখার কেউ নেই। বটতলা প্রাথমিক বিদ্যালয় চরশিহারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, পলাশ কান্দা প্রাথমিক বিদ্যালয় কওমি মাদ্রাসা সহ বিভিন্ন রাস্তার ঘেসে রয়েছে ইটভাটা। ইটভাটার ধুঁয়া ধুলাবালিতে শিক্ষার্থী ও পথ চারিদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ইটভাটার কালো ধোঁয়া আর মাত্রারিক্ত ধুলাবালিতে পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। এবং জমির ফসল ও  গাছপালা বিবর্ণ হয়ে যাচ্ছে।
এ ব্যাপারে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজীব কুমার সরকার বলেন, অবৈধ ইটভাটাগুলোয় দ্রুত অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।