| |

ঝিনাইগাতীতে কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যা

ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি : শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলা সদরে শারীরিক নির্যাতনের অপমান সইতে না পেরে অরবিন্দ্র চন্দ্র বর্মণ (১৮) নামে এক কলেজছাত্র বিষপানে আত্মহত্যা করেছে। অরবিন্দ্র চন্দ্র বর্মণ উপজেলা সদরে রতেœশ্বরের কলেজ পড়–য়া ছেলে। সে ১৭ অক্টোবর শনিবার বিষপান করে। উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শ্রী গোপাল চন্দ্র সেন গুপ্ত আওয়ামী লীগ নেতা বিশ্বজিৎ রায় ও তার পারিবারিক সূত্র জানায়, স্থানীয় এক মুসলিম পরিবারের মেয়ের সাথে অরবিন্দ্রের সম্পর্কের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১৫ অক্টোবর বৃহস্পতিবার রাতে ওই মুসিলম পরিবারের লোকজন তাকে ডেকে নিয়ে মারধর করে। এক পর্যায়ে অরবিন্দ্রের অভিভাবক রতেœশ্বরকে ডেকে এনে ছেলেকে তার বাবার হাতে তুলে দেয়। এ সময় রতেœশ্বর নিজেও ছেলেকে মারধর করে। এ অপমান সইতে না পেরে শনিবার বিকেলে অরবিন্দ্র গারো পাহাড়ের গজনী অবকাশের নির্জনস্থানে গিয়ে বিষপান করে। খবর পেয়ে অরবিন্দ্রের বাবা রতেœশ্বর তার বিষপানকৃত ছেলেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষনা করে। পরে অরবিন্দ্রের মৃত্যুর দায় পিতার ঘাড়ে এসে পড়লে রতেœশ্বর মূল ঘটনাটি থানা পুলিশসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে বলে দেয়।   পুলিশ অরবিন্দ্রের মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্যে মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের চাপা ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে। থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই খোকন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।