| |

দেওয়ানগঞ্জ শেখপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরোদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

জামালপুর প্রতিনিধি॥দেওয়ানগঞ্জ শেখপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরোদ্ধে নানা অনিয়ম,দুর্নীতি ক্ষমতা অপব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে জানাগেছে শেখপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সেরাতুল মনিরা বিগত ৬বৎসর যাবত যোগদানের পর থেকে তিনি নানা অনিয়ম,দুর্নীতি, ক্ষমতা অপব্যবহার করে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাৎ করে যাচ্ছে। তিনি বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্যদের নিয়ে মাসিক সভা না করে এম আর দাখিল করার নজির রয়েছে। গত ডিসেম্বর/১৬ মাসে ৩দিনের ছুটি নিয়ে ১৮দিন অনুপস্থিত থেকে এম আর দাখিল করেছেন। গত অর্থ বৎসরে বিদ্যালয়ের স্লীপের ৪০হাজার টাকা,পাক-প্রাথমিকের ৫হাজার টাকা এবং টয়লেট মেরামতের ২০হাজার টাকা উত্তেলন করে নামে মাত্র ১০হাজার টাকার মেরামতের কাজ করে অবশিষ্ট টাকা নিজে আত্মসাৎ করেছেন বলে বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য পরিচালনা কমিটির সদস্যসহ  প্রায় ৮০জন এলাকাবাসি প্রধান শিক্ষকের বিরোদ্ধে অপসারন দাবী করে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মমর্তা বরাবরে একটি অভিযোগ প্রেরণ করেছেন। অপর দিকে দুর্নীতিবাজ প্রধান শিক্ষক সেরাতুল মনিরা তিনি বিদ্যালয় ক্র্যাসম্যান এরিয়ার অসহায় দরিদ্র পঞ্চম শ্রেনীর ভর্তিকৃত ছাত্র আনজু মিয়াকে প্রতিহিংসা বসত হাজিরা খাতা থেকে নাম কেটে শিশুটির ভর্তি বাতিল করেছেন মর্মে শিশুর বাবা কাসিদ আলী পৃথক একটি অভিযোগ পত্র জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবরে প্রেরণ করেছেন। অপর দিকে  বিদ্যালয়ের প্রবীন সহকারী শিক্ষক ক্র্যাসম্যান এরিয়ার ছাত্র আনজুকে ভর্তি করার অপরাধে দুর্নীবাজ প্রধান শিক্ষক তাকে  শাররীক ও মানসিক ভাবে লাঞ্চিত করেছেন। এজন্য এলাকাবাসি প্রধান শিক্ষকের অনিময়,দুর্নীতি ক্ষমতা অপব্যবহার করে ছাত্র ভর্তি বাতিল করায় তাকে অপসারণ দাবীতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছেন। অবিলম্বে পদক্ষেপ গ্রহন করা না হলে যে কোন মুহুর্তে অনাকাংখিত অঘটন ঘটে যেতে পারে বলে এলাকাবাসিরা জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফতাব উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন।