| |

নান্দাইলে পূর্বশত্রুতার জের ব্যবসায়ীকে মারধর ॥ লুটপাট থানায় মামলা

নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মেরেঙ্গা নতুন বাজারের মুদির দোকানদার ও বিকাশ-ফেক্সিলোড ব্যবসায়ী রুবেল মিয়াকে মারধর করে আহত এবং দোকানে লুটপাট করার গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। বর্তমানে ব্যবসায়ী রুবেল মিয়া কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী রুবেল মিয়ার ছোট ভাই কাঞ্চন মিয়া বাদীর দায়েরকৃত অভিযোগে নান্দাইল মডেল থানায় মামলা নং ০৫/২২ ধারা ১৪৩/ ৪৪৮/ ৩২৩/ ৩২৬/ ৩০৭/ ৩৮০/ ৫০৬/১১৪/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০ রুজু করা হয়। মামলা সূত্রে ও স্থানীয়ভাবে জানাগেছে, ব্যবসায়ী রুবেল মিয়া নান্দাইল উপজেলার মুশুল্লি ইউনিয়নের বারপাড়া গ্রামের মৃত মোশারফ হোসেনের পুত্র। একই গ্রামের বংশীয়ধর মৃত মফিজ উদ্দিনের পুত্র মঞ্জু মিয়া, রঞ্জু মিয়া, ফারুক মিয়া ও আতাউর রহমানের পুত্র আমিনুল মিয়া প্রতিপক্ষদের সাথে জমি-জমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতা চলে আসছিল। এরই প্রেক্ষিতে গত ৭ই জানুয়ারি/২২ইং তারিখ সন্ধ্যার দিকে উল্লেখিত ব্যক্তিরা মেরেঙ্গা নতুন বাজার জামে মসজিদ সংলগ্ন রুবেল মিয়ার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। এসময় প্রতিপক্ষ ফারুক মিয়ার নির্দেশে মঞ্জু মিয়া ও তাঁর পুত্র সাদ্দাম ব্যবসায়ী রুবেল মিয়াকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মাথায় আঘাত করে গুরুতর আহত করে। এছাড়া ফারুক মিয়ার পুত্র মাসুদ মিয়া ও সোহেল মিয়া সহ উল্লেখিত অন্যান্য ব্যক্তিরা তাকে এলোপাথারী মারপিট করে দোকানে প্রবেশ করিয়া নগদ ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা ছিনাইয়া নিয়া যায় বলে বাদী অভিযোগ উল্লেখ করেন। এসময় রুবেল মিয়ার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন দৌড়ে আসলে প্রতিপক্ষ ব্যক্তিরা প্রাণনাশের ভয়ভীতি দেখাইয়া পালাইয়া যায়। পরে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে দ্রুত কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরন করে। এ ঘটনায় বাদী কাঞ্চন মিয়া সহ রুবেল মিয়ার পরিবারের লোকজন প্রতিপক্ষের অত্যাচার-নির্যাতন থেকে রেহাই পেতে উর্ধ্বতন পুলিশ প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। নান্দাইল মডেল থানার উপ-পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রুবেল মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধের ঘটনা। তবে আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।