| |

ব্র্যাক ময়মনসিংহের উদ্যোগে ডাইরেক্ট এ্যাক্টরস অরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

 

স্টাফ রিপর্োার ঃ অধিকার এখানে, এখনই (Right Here Right Now) প্রকল্প সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনি সুরক্ষা কর্মসূচি, ব্র্যাক ময়মনসিংহের উদ্যোগে ডাইরেক্ট এ্যাক্টরস অরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্র“য়ারি) সকালে সিটি কর্পোরেশনের শহীদ শাহাবুদ্দিন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত অরিয়েন্টেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, বাংলাদেশে ১৫ হতে ২৪ বছর বয়সী (কিশোর কিশোরী) জনসংখ্যা মোট জনসংখ্যার ৫০ শতাংশের অধিক। কিশোর-কিশোরীদের দৈহিক সুস্বাস্থ্য এবং মানসিক বিকাশ নির্ভর করে বয়স-উপযোগী যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার বিষয়ক তথ্য এবং সেবা প্রাপ্তির উপর। কিন্তু অধিকাংশ কিশোর-কিশোরীরা বয়ঃসন্ধিকালে যে শারিরীক ও মনোদৈহিক পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যায় সে ব্যাপারে তাদের যথেষ্ট ধারণা থাকে না। তিনি আরো বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠ্য বইয়ে এ বিষয়ে আলোচনা থাকলেও তা অনেক সময় এড়িয়ে চলা হয়। ফলে সীঠক ও বিজ্ঞানসম্মত তথ্য না জানার ফলে কিশোর-কিশোরীরা বিভ্রান্তিতে ভোগে। তাই প্রজনন স্বাস্থ্য সর্ম্পকে অংশি জনের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে এবং অবহিত করতে হবে। পরিবারে বাবা মার পাশাপাশি বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের এ বিষয়ে কিশোরীদের ধারণা দিতে হবে।
ব্র্যাক জেলা সমন্বয়কারী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম এর সভাপতিত্বে অরিয়েন্টেশনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরো বলেন, সরকার বিভিন্ন ভাবে এ বিষয়ে পৃষ্টপোষকতা করছে। পাশাপাশি বেসরকারী সংস্থাও করছে। কোন কিছুকেই হেয় করে দেখা যাবে না। প্রজনন স্বাস্থ্য সর্ম্পকে কিশোর কিশোরীদের সচেতন করতে হবে। তাদের কুসংস্কার থেকে বের করে নিয়ে আসতে হবে। নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে নিতে তাদের প্রজনন স্বাস্থ্যসেবার পাশাপাশি সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে তুলতে হবে। তিনি আরো বলেন, নারীরা সব ক্ষেত্রেই এগিয়ে যাচ্ছে তাদের যোগ্যতা বলে। তাদের সন্মান দিতে হবে। তবেই নারী পুরুষ সমতা আসবে এবং দেশ এগিয়ে যাবে। উন্নত বাংলাদেশ বির্নিমান করতে হলে কাউকে পিছনে ফেলে নয় সবাইকে মিলে মিশে কাজ করতে হবে।
বিষয় বস্তুর উপর প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন প্রকল্পের এরিয়া কো. অর্ডিনেটর মোঃ জিল্লুর রহমান। অরিয়েন্টেশনে আরো বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর ফারুক হাসান, রোকশানা শিরিন, ব্র্যাক জোনাল ম্যানেজার আকরামুল ইসলাম প্রমুখ। সঞ্চালনায় ছিলেন কথা আক্তার। এসময় ব্র্যাক স্বাস্থ্য বিভাগের নুসরাত জাহান, বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধি, ব্যাকের কর্মকর্তা ও সাংবাদিক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।