| |

ময়মনসিংহ র‌্যাবের অভিযানে নকল স্বর্ণের বারসহ ২ প্রতারক গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার : ময়মনসিংহ র‌্যাবের অভিযানে নকল স্বর্ণের বার দেখিয়ে প্রতারণা, দুইজন গ্রেফতার । গত ২১ ফেব্রুয়ারি বেলা ২টায় প্রতারক চক্রের দ্বারা ভুক্তভুগী মোছাঃ রোকসানা (৪২), স্বামী-মোঃ শফিকুল ইসলাম, সাং- গোমগাও, থানা- ফুলপুর, জেলা- ময়মনসিংহ তার বাবার বাড়ী কৃষ্টপুর হইতে স্বামীর বাড়ি ফুলপুর থানাধীন গোমগাও যাওয়ার জন্য পাটগুদাম সিএনজি স্ট্যান্ডে থাকা একটি সিএনজিতে আগে থেকই চার জন প্রতারক বসা ছিল। উক্ত সিএনজির ভিতর হইতে একজন প্রতারক মোছাঃ রোকসানা বেগমকে কোথায় যাবে বলে জিজ্ঞেস করে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ফুলপুর যাবো বলিয়া জানাইলে প্রতারকরা বলেন যে, উক্ত সিএনজিটি ফুলপুর যাবে। প্রতারকদের কথায় মোছাঃ রোকসানা উক্ত সিএনজিতে উঠে। সিএনজিটি পাটগুদাম ব্রীজের উপর উঠার পর ভেতরে থাকা ০১ নং প্রতারক বাদল চৌহান মোছাঃ রোকসানাকে বলেন যে, রাস্তার উপর পড়ে থাকা একটি ছোট ব্যাগের ভিতর সে ০২(দুই)টি স্বর্ণের বার পেয়েছে। উক্ত বার দুইটি ৩ (তিন) ভরি ওজনের এবং অনেক দামী। প্রতারক বাদল চৌহান আরো বলেন যে, মোছাঃ রোকসানার গলার চেইন, কানের দুল, মোবাইল এবং কিছু নগদ টাকা তাকে দিলে তাহার কাছে থাকা স্বর্ণের বার ০২ (দুই)টি মোছাঃ রোকসানাকে দিয়ে দিবে। মোছাঃ রোকসানা তার কথায় বিশ্বাস করে তার কাছে থাকা কানের দুটি স্বর্ণের দুল যার ওজন চার আনা, যার মূল্য অনুমান-১৬,৫০০/-(ষোল হাজার আট শত) টাকা ও গলায় থাকা আট আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন, যার মূল্য অনুমান ৩৩,০০০/-(তেত্রিশ হাজার) টাকা, একটি সিম্ফনি বাটন মোবাইল এবং নগদ ৫,০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা প্রতারক বাদল চৌহানকে দিয়ে দেয়। তারপর প্রতারক বাদল চৌহান তার কাছে থাকা স্বর্ণের বার দুইটি রোকসানাকে দেয়। রোকসানা স্বর্ণের বার দুইটি হাতে পেয়ে বুঝতে পারে যে, বার দুইটি আসল স্বর্ণ নয়। উক্ত প্রতারকগন তার সাথে প্রতারণা করিতেছে। তখন রোকসানা উক্ত বার দুইটি তাকে ফেরত দিয়ে তার দেওয়া মালামাল সমূহ ফেরত চায়। তখন সিএনজি টি দ্রুত গতিতে ময়মনসিংহ জেলার কোতোয়ালী থানাধীন শম্ভুগঞ্জ এতিমখানা মোড়স্থ জনৈক হারুন রশিদ এর বস্তার দোকানের সামনে পৌঁছাইলে সিএনজি থেকে প্রতারকগন রোকসানার মালামাল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করিলে রোকসানা ০১ নং প্রতারক বাদল চৌহানকে ঝাপটে ধরে চিৎকার করিলে তার চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এবং পাশে থাকা র‌্যাবের একটি টহল দল ঘটনাস্থলে আসিয়া আশে পাশের লোকজনের সহায়তায় ০২ (দুই) জন প্রতারক ১। বাদল চৌহান(৪৭), পিতা-মৃত জীবন চৌহান, সাং- হরিরামপুর, ২। মোঃ ফেরদৌস (৩০) পিতা-মৃত গিয়াস উদ্দিন সাং-দীঘারকান্দা, উভয় থানা-কোতোয়ালী, জেলা- ময়মনসিংহকে ধৃত করতে সক্ষম হয়। অবশিষ্ট ০২ জন প্রতারক মালামাল সহ কৌশলে পালিয়ে যায়। ধৃত প্রতারক চক্রের দেহ তল্লাশী করে ধৃত ০১ ও ০২ নং আসামীর হেফাজত হইতে একটি সিএনজি ও ০১ নং প্রতারক বাদল চৌহান এর পকেট হইতে একটি নীল বাটন মোবাইল ও ০২ (দুই)টি স্বর্ণের বার সাদৃশ যার ওজন ৩৭ (সাইত্রিশ) গ্রাম উদ্ধার করে জব্দ করে। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ময়মনসিংহ জেলার কোতোয়ালী থানাসহ বিভিন্ন এলাকায় স্বর্ণের সাদৃশ বার দিয়ে প্রতারনা করে বিভিন্ন মানুষের নিকট হইতে টাকা পয়সা, স্বর্ণ অলংকার হাতিয়ে নেয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও অনুসন্ধানে জানা যায় তারা দীর্ঘদিন যাবৎ এই প্রতারণার ব্যবসা করে আসছিল । এই সমস্ত প্রতারক চক্রের সদস্যদের বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।