| |

সঠিক ভাবে প্রশিক্ষণ নিয়ে বিদ্যালয়ে দক্ষ মানব সম্পদ গড়ে তুলুন- প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

রঞ্জন মজুমদার শিবু : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন এমপি বলেছেন, আমাদের পরিবার শিক্ষকের পরিবার। পূর্বে শিক্ষকদের কি দুর্দিন ছিল তা আমি জানি। আপনারা এযুগের শিক্ষক। আপনাদের জীবনমান উন্নয়ন হয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলে প্রাথমিক শিক্ষক ও শিক্ষার আমুল পরিবর্তন হয়েছে। শিক্ষকতা সন্মান জনক পেশা। সঠিক ভাবে প্রশিক্ষণ নিয়ে বিদ্যালয়ে গিয়ে দক্ষ মানব সম্পদ গড়ে তুলুন। আপনার সন্তানের মত সাধারণ মানুষের সন্তানদের মানসম্মত শিক্ষা দিয়ে মানুষ করুন। আপনাদের জন্য আমি কাজ করব। গতকাল সোমবার (১৬ মে) বিকেলে ময়মনসিংহে প্রাইমারি টির্চার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট চত্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর মূর‌্যাল উদ্বোধন ও উদ্বোধন পরবর্তী মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রাইমারি টির্চার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (পিটিআই) এর সুপারেন্টেডেন্ট রকিবুল ইসলাম তালুকদার এর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু উপলব্ধি করেছিলেন যে, উন্নত জাতি গঠনে শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। সেজন্যই বঙ্গবন্ধু সর্বপ্রথম প্রাথমিক শিক্ষা জাতিয়করন ও শিক্ষকদের সরকারী চাকরীর মর্যাদা দিয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর পর কোন সরকার প্রাথমিক শিক্ষায় নজর দেয়নি। তিনি প্রাথমিক শিক্ষকদের মর্যাদা দিয়েছেন। তারই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১০ সালে ২৬ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে সরকারীকরন করেছেন। সেইসাথে ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে বছরের প্রথম দিন বিনা মূল্যে বই তুলে দিচ্ছেন। প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমানে প্রতিটি বিদ্যালয়ে আধুনিক ভবন তৈরী হয়েছে। যেখানে শিক্ষার্থীরা ভালভাবে লেখাপড়া করতে পারে। সাড়ে তিন লক্ষ শিক্ষকের চাকুরী হয়েছে। সেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নারীদের অগ্রাধিকার দিয়েছেন। সকল ক্ষেত্রে নারীদের সন্মান দিয়েছেন। বর্তমানে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা দেওয়া হচ্ছে মায়েদের হাতে। তিনি আরো বলেন, শিক্ষকদের পদন্নতির ব্যবস্থা করা হয়েছে। আপনারা ১৩ তম গ্রেট পেয়েছেন। সহকারি থেকে সহকারি প্রধান পরে প্রধান শিক্ষক এবং যোগ্যতা থাকলে আরো উপরে যাবেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে সোনার বাংলা গড়তে আপনাদের সহযোগিতা চাই। আপনারাই সোনার বাংলা গড়ার কারিগর। এর আগে প্রতিমন্ত্রী স্বাধীনতা চত্বর উদ্বোধন করেন এবং পিটিআই এর বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শণ করেন।
মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ন্যাপ পরিচালক ফরিদ আহম্মেদ, প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগীয় উপ-পরিচালক মির্জা মোহাম্মদ হাসান খসরু, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ শফিউল হক, রাজীবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আকবর হোসন, প্রতিমন্ত্রীর সহধর্মীনি সুরাইয়া সুলতানা প্রমুখ। পিটিআই এর কর্মকর্তা জয়নাল আবেদিন ও সোহেলী আক্তার এর সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন প্রশিক্ষণার্থী শেখ মনির আহম্মদ ও মাহবুবুল ইসলাম। ময়মনসিংহ প্রাইমারি টির্চার্স ট্রেনিং ইনস্টিটিউট আয়োজিত অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, পিটি আই কর্মকর্তা, শিক্ষক, প্রশিক্ষণার্থীসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।