| |

করুনাময় স্রস্টার প্রতি শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশের মধ্যদিয়ে ময়মনসিংহে আদিবাসীদের চুগান উৎসব উদযাপন

স্টাফ রিপোর্টার ঃ জেলা প্রশাসক মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী বলেন নতুন ধান উৎপাদন ও নতুন ফসল ঘরে উঠানো সহ স্রষ্টার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশের জন্য যে উৎসবের আয়োজন করা হয় সেটাই হল চুগান উৎসব। এই উৎসবের মধ্য দিয়ে আদিবাসীরা তাদের নতুন জীবন যাত্রা এবং সারা বছর যেন ভাল যায়, ভাল ভাবে যেন দিন যাপন করতে পারে সেই প্রার্থনাই করে। প্রত্যেকটি সমপ্্রদায়েরই এমন উৎসব প্রয়োজন। উৎসব ছাড়া জীবনে কোন প্রান আসে না। সেই কারনেই ঐতিহ্য গত ভাবেই প্রাগ ঐতিহাসিক কালথেকে মানুষের উৎসবের প্রেরনা রয়েছে। গতকাল শুক্রবার (৫জানুয়ারী) সকালে ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী সেল জেলা শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে টাউন হল প্রাঙ্গনে চুগান র‌্যালীর উদ্বোধন কালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন আমাদের দেশ সংস্কৃতি সমৃদ্ধির দেশ। আমরা এক সাথে থাকতে ভালবাসি। আমাদের হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্য গুলোকে ফিরিয়ে আনতে হবে, কেননা সংস্কৃতির মাধ্যমে একটি জাতি প্রতিষ্ঠা পেতে পারে। র‌্যালীটি টাউন হল প্রাঙ্গন থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলানায়তনে গিয়ে শেষ হয়। জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত চুগান নৃত্য শিল্পীরা বর্নাঢ্য নৃত্যের মধ্য দিয়ে র‌্যালীতে অংশ গ্রহন করেন। র‌্যালী শেষে শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী সেল এর আহবায়ক অরণ্য ই চিরান এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অতিঃ জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শারমিন জাহান, বিশিষ্ট কবি ও আদিবাসী বিষয়ক গবেষক কবি মতেন্দ্র মানখিন, জলছত্রের এডিপি কর্মকর্তা পরিতোষ রেমা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা কালচারাল অফিসার মোঃ আরজু পারভেজ। সঞ্চালনায় ছিলেন ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী সেলের সদস্য মিসেস চৈতালী রেমা। আলোচনা শেষে রে-রে, চুগান অভিনয়, পিঠা আয়োজন ও আদিবাসী বাঙ্গালির মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।