| |

ঈশ্বরগঞ্জ সেচ ম্যানেজারের স্বেচ্ছা চারিতায় ৬শ কাঠা বোরো জমি অনাবাদি

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার তারুন্দিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ পূর্ব সমবায় সমিতির সেচ মেশিন ম্যানেজারের স্বেচ্ছা চারিতার কারণে চলিতি মৌসুমে ৬শ কাঠা বোরো জমি অনাবাদি পড়ে রয়েছে । এতে প্রায় ৩ শতাধিক মন ধান উৎপাদন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন কৃষক। মেশিনটি বন্ধ থাকায় যেমন ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে কৃষক তেমনি কৃষি উন্নয়ন মারাতœক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায় সেচ মেশিনটি ম্যানেজার আবুল হোসেন তার নিয়ন্ত্রণে রেখে তালা ঝুলিয়ে রেখেছেন। ওই সমিতির সদস্য আব্দুস সালাম, নুরুল ইসলাম, নুরউদ্দিন ,আবুল খায়ের , জালাল উদ্দিন, গোলাম রব্বানি, হাসিম উদিন সিদ্দিকুর রহমান, আব্দুল মতিন, ফজলুল হক, সাইফুল ইসলাম, মাইজ উদ্দিনের সাথে কথা হলে তারা অভিযোগ করে বলেন দীর্ঘ দিন ধরে আবুল হোসেন ও তার পরিবারের লোকজন সেচ মেশিনটি তাদের নিয়ন্ত্রনে রেখে বোর চাষাবাদ করে আসছে। গত বোরো মৌসুমে ৬শ ৩২ কাটা জমিতে বোর আবাদ করা হয়। এ সময় ম্যানেজার কৃষদের কাছ থেকে সেচ ভাড়া বাবত কাটা প্রতি ৫শ টাকা আদায় করেন। কিন্তু তিনি বিদুৎ বিল পরিশোধ করেননি এবং সদস্যদের কাছে আয় ব্যায়ের কোন হিসাবও দেননি। সেচ ম্যানেজারের আবুল হোসেন তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেন। এ নিয়ে সমিতির সদস্যদের মাঝে বিরোধ চরম আকার ধারণ করেছে। ফলে চলতি মৌসুমে বোর আবাদের সময় প্রায় শেষ হয়ে আসলেও সেচ মেশিন চালুর কোন সম্ভবনা দেখা যাচ্ছে না। এলাকার সাধারণ কৃষকরা বলেছেন সমিতির দ্বন্দ্বের কারনে আমরা বোর আবাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। গতকাল মঙ্গলবার এ সম্পর্কে উপজেলা সেচ কমিটির সদস্য সচিব উচ্চতর উপসহকারী প্রকৌশলী বিএডিসির আব্দুছ ছাত্তারকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন এ বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে মেসিনটি বন্ধ থাকায় কৃষি উৎপাদনে মারাতœক ক্ষতি হবে।