শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৪৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ

টাঙ্গাইলে পুলিশের গুলিতে নিহত ৩ স্বজনদের পাশে নেই উপনির্বাচনের প্রার্থীরা

Reporter Name / ৩ Time View
Update : সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৫, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদদাতা : টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে পুলিশ-এলাকাবাসী সংঘর্ষে পুলিশের গুলিতে তিনজন নিহতের ঘটনায় পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি মাহফুজুল হক নুরুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ঘাটাইল থানার একজন ও কালিহাতী থানার দুইজন উপপরিদর্শক (এসআই) এবং চার কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। শনিবার রাত ৮টায় তাদের প্রত্যাহার করে টাঙ্গাইল পুলিশ লাইনে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। প্রত্যাহার করা পুলিশ সদস্যরা হলেন, ঘাটাইল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনসুব আলী, কনস্টেবল হারুন-অর-রশীদ, লিয়াকত আলী ও কালিহাতী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল বাসার, সলিম উদ্দিন, কনস্টেবল জিয়াউল হক ও আমিরুল ইসলাম।
এদিকে নিহতের ঘটনায় টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট ও পুলিশ সদর দপ্তরের পক্ষ থেকে তিন সদস্যবিশিষ্ট পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রত্যেক নিহতের পরিবারকে পঞ্চাশ হাজার টাকা অনুদান দেয়ার ঘোষনা দেয়া হয়েছে।
নারী লাঞ্চনার ঘটনার প্রতিবাদের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের গুলিতে তিনজন নিহত হওয়ায় কালিহাতীসহ পুরো টাঙ্গাইলে শোকের ছায়া নেমে এসছে। ঘটনায় পাশে এসেছে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি মাহফুজুল হক নুরুজ্জামানসহ প্রশাসন ও সাধারন মানুষ। অথচ পাশে নেই উপনির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীরা।
১০ নভেম্বর টাঙ্গাইল-৪ কালিহাতীর শূণ্য আসনের উপনির্বাচনকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মনোনয়ন পাবার জন্য দৌড়ঝাপে ব্যস্ত রয়েছে। অনেকে প্রচার প্রচারনা নিয়েও ব্যস্ত। নির্বাচনী এলাকায় তিন জনের মৃত্যুতে এসকল নেতাদেরকে স্বজনদের পাশে দাড়াতে দেখা যায়নি। প্রত্যেকের প্রচারণায় “কালিহাতীর জনগন” কথা থাকলেও  শোকের সময় এদের পাশে না থাকায় স্বজনসহ স্থানীয়দের মাঝে চাপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশের গুলিতে তিনজন নিহত ও কমপক্ষে পচিশজন আহত হল অথচ পুলিশই মামলা করেছে সাধারন জনতার বিপক্ষে। ইতিমধ্যে ৫জনকে আটক করেছে পুলিশ। এরপরও সাধারন মানুষের পাশে দাঁড়ায়নি মনোনয়ন প্রত্যাশীরা।
স্থানীয়দের অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে কথা বল্লে সরকারের বিপক্ষে চলে যেতে পারে। এতে মনোনয়ন পেতে বিড়ম্বনা পোহাতে হবে। এজন্যই নিহতের স্বজনদের পাশে নেই প্রার্থীরা। উপনির্বাচনের সম্ভ্যাব্য প্রার্থী কৃষক শ্রমিক জনতালীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী শনিবার কালিহাতীর বেতডোমা ফাতেমা হালিম উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে আয়োজিত এক জনসভায় বিচারের দাবীতে বক্তব্য দিলেও এলাকার মানুষের ধারনা এটা নির্বাচনী প্রচারনায় বক্তব্য। এর পরও তিনি মূখ খোলাতে অনেকের মনে স্বস্তি এসছে।
এলাকাবাসীর অভিমত, নির্বাচনের আগেই প্রার্থীদের পাশে পাওয়া যাচ্ছে না। নির্বাচিত হয়ে এরা কতটা পাশে থাকবে। এনিয়ে জনমনে সংশয় দেখা দিয়েছে।
প্রসঙ্গত,১৫ সেপ্টেম্বর কালিহাতীতে ছেলের সামনে মাকে শ্লীতাহানীর প্রতিবাদে শুক্রবার বিকেলে ঘাটাইল-কালিহাতী এলাকাবাসী মিছিল বের করে। এ মিছিলে বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে ঘাটাইল উপজেলার সাতুটিয়া গ্রামের ফারুক (৩২), কালিয়া গ্রামের আলহাজের ছেলে শামীম (৩৫) ও কালিহাতী সদরের রবি দাসের ছেলে শ্যামল দাস (১৫) গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category

সম্পাদকঃ শ্রী জগদীশ চন্দ্র সরকার

আজকের পত্রিকা


Theme Created By ThemesDealer.Com